1. admin@sonerbanglanews24.com : admin :
বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ০৭:২৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
সামর্থ্য অনুযায়ী অসহায়দের পাশে দাড়ান- শিক্ষক সমিতির ঈদ সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানেএমপি নাসির ভিজিএফ কার্ড সহ সকল ন্যায্য অধিকার জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেওয়ার জন্য কাজ করে যাচ্ছি-এমপি নাসির সাফল্যের ২০ বছরে দেশের অন্যতম বিপিও প্রতিষ্ঠান ফিফোটেক চুরামনকাঠির চুরি যাওয়া ৬ট্রাক কাঠ সীমাখালিতে উদ্ধার কথা সাহিত্যিক রেজা নুর এর ১৬তম কাব্যগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন স্বাস্থ্যমন্ত্রী পুরষ্কার-২২ চৌগাছা ও ঝিকরগাছা উপজেলা যথাক্রমে ১ম ও ৭ম ভাষা শহীদদের প্রতি এমপি নাসির উদ্দীন এর শ্রদ্ধা নিবেদন ‘জয় বাংলা’ কে জাতীয় স্লোগান করার সিদ্ধান্ত মন্ত্রীসভার বৈঠকে বেজিয়াতলা ইংরেজি উচ্চ বিদ্যালয় এর নতুন কমিটি গঠন সাস্থ্যবিধি মেনে চলুন, নিজে সুস্থ্য থাকুন অন্যদের সুস্থ্য থাকতে সহযোগিতা করুন

চুরামনকাঠির চুরি যাওয়া ৬ট্রাক কাঠ সীমাখালিতে উদ্ধার

বিশেষ প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : রবিবার, ১৭ এপ্রিল, ২০২২
  • ৫৭ বার পঠিত

বিশেষ প্রতিনিধিঃ চুরামনকাঠির সেই ৬ ট্রাক কাঠের সন্ধান মিলল সীমাখালীতে। যশোর সদর উপজেলার চুরামনকাঠি এলাকা থেকে ৬ ট্রাক কাঠ আত্মসাত করার অভিযোগ উঠেছে এক ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে। সাতদিন পর সেই কাঠগুলোর সন্ধান মিলেছে মাগুরার শালিখা উপজেলার সীমাখালী বাজারে। তবে অভিযুক্ত ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের মালিক সালাহউদ্দিন এখনো পর্যন্ত পুলিশকে বৈধ কোন কাগজপত্র দেখাতে পারেননি।

এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স রাকিব হাসান যশোর-ঝিনাইদহ সড়কের গাছ কাটার কাজ বন্ধ রাখার জন্য যশোর জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন। পাশাপাশি আত্মসাতকৃত বিপুল পরিমান ওই কাঠ উদ্ধারে আইনি সহায়তা পেতে বিভাগীয় বন কর্মকর্তার কার্যালয় যশোর ও শালিখা থানায় একটি করে লিখিত এবং বন বিভাগ মাগুরায় মৌখিক অভিযোগ করেছেন।

অভিযোগে ওই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের মালিক রাকিব হাসান উল্লেখ করেছেন, যশোর-ঝিনাইদহ সড়ক উন্নয়ন কাজে খাড়া গাছগুলো বিক্রয়ের দরপত্র আহবান করে মালিকানাধীন যশোর জেলা পরিষদ। সর্বোচ্চ দরদাতা হিসেবে সড়কের ২নং লটের ৩০১-৬০০ নং পর্যন্ত গাছ কেনার অনুমতি পান ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স রাকিব হাসানের মালিক রাকিব হাসান। এরপর ২০২১ সালের ১৩ ডিসেম্বর গাছগুলো কাটার জন্য ৫০% ব্যবসায়িক অংশীদার হিসেবে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স নুসরাত এন্টারপ্রাইজের মালিক সালাহউদ্দিন সাথে চুক্তিবদ্ধ হন। উক্ত কাজে মেসার্স রাকিব হাসান এর পক্ষে ১.৮২কোটি টাকা(পে-অর্ডার নং-২৮১১৭৬৩ তারিখ ২৯/১২/২০২১ টাকা ৮৩লাখ, পে-অর্ডার নং-২৫৮৮০২২ তারিখ-১৫/১১/২০২১ টাকা ৫৭লাখ, পে-অর্ডার নং-২৫৮৮০২৩ তারিখ-১৫/১১/২০২১ টাকা ৪২লাখ)এনআরবিসি ব্যাংক, শ্যামলী শাখা ও মেসার্স নুসরাত এন্টারপ্রাইজ এর পক্ষে ১.২৮৮৩কোটি টাকা(পে-অর্ডার নং-২৮১৩০৩৫ তারিখ-২০/১২/২০২১ টাকা ৪৫.৮৩লাখ ডাচ বাংলা ব্যাংক, ইব্রাহিমপুর শাখা ও পে-অর্ডার নং-২৩০৫২৪৫ তারিখ-২০/১২/২০২১ টাকা ৮৩লাখ, এনআরবিসি ব্যাংক, ইব্রাহিমপুর শাখা) জেলা পরিষদকে পরিশোধ করা হয়। এছাড়া মেসার্স রাকিব হাসান এর পক্ষ থেকে ৭৯.৫০লাখ টাকার সিকিউরিটি পে-অর্ডার জমা করা হয়। চুক্তির শর্ত সাপেক্ষে গাছ কাটার কাজ শুরু হয় এবং ম্যানেজার ইকবাল এর মাধ্যমে সাইট পরিচালিত হয়। কিন্ত গত সাতদিন আগে গোপনে যশোর সদরের চুরামনকাঠি এলাকায় কাজের সাইট থেকে ২ গাড়ি (৯০০ সেফটি) কাঠ ট্রাকে করে নিয়ে চলে আসেন সালাহউদ্দিন। এতে উভয় ঠিকাদারের মধ্যে সুসম্পর্ক ব্যাহত হয় এবং বাকি গাছগুলো কাটায় প্রতিবন্ধকা সৃষ্টি হয়। এরপর বিষয়টি সমাধানের জন্য গত ১২ এপ্রিল উভয় পক্ষ বসার দিন ধার্য করে। কিন্তু ১১ এপ্রিল সকালে গোপনে ২টি ক্রেন দিয়ে রাকিব হাসানের ভাগের ৪ ট্রাক কাঠ সালাহউদ্দিন সীমাখালী বাজারে নিয়ে এসে তার দোকানের পিছনে ও বাড়ির মসজিদের পাশে রেখেছেন। বিষয়টি জানতে পেরে পরদিনই ওই সড়কের গাছ কাটার কাজ বন্ধ রাখার জন্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী ঠিকাদার রাকিব হাসান। পাশাপাশি বিপুল পরিমান কাঠ উদ্ধার ও আইনি সহায়তা পেতে বিভাগীয় বন কর্মকর্তার কার্যালয় যশোর ও শালিখা থানায় একটি করে লিখিত এবং বন বিভাগ মাগুরায় মৌখিক অভিযোগ করেন।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ঠিকাদার সালাহউদ্দিনের মুঠোফোনে ০১৭০০-৭৪৩৮৪৯ নম্বরে একাধিকবার কল করলেও তিনি রিসিভ না করায় তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

মাগুরা বন বিভাগের রেঞ্জ কর্মকর্তা তপেন্দ্রনাথ সরকার বলেন, ‘প্রথম পক্ষ সরাসরি থানায় অভিযোগ করবে। তদন্ত সাপেক্ষে পুলিশ এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেবে। অথবা আদালতে মামলা করার পর কাঠগুলো অবৈধ প্রমাণিত হলে বনবিভাগকে তা জব্দ করতে নির্দেশ দিলে তখনই ব্যবস্থা নিতে পারবো।’

জানতে চাইলে যশোর জেলা পরিষদের সহকারী প্রকৌশলী ওয়াহিদুজ্জামান বলেন, ‘আমি শুনেছি কাজের সাইটে দুই পার্টনারের মধ্যে একটা সমস্যা হয়েছে। তবে কাঠ চুরি হয়েছে কিনা সরেজমিন তদন্ত না করে বলা যাচ্ছে না।’

প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা আরিফ-উজ-জামান বলেন, ‘অভিযোগ এখনো আমি দেখিনি। অভিযোগটি দেখে দ্রæত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

এ ব্যাপারে আজ শনিবার শালিখা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বিশারুল ইসলাম মুঠোফোনে জানান তিনি বিষয়টি অবহিত আছেন। দুই পক্ষকেই দ্রুত সমাধানের জন্য অনুরোধ করেছি। জব্দ কাঠ অন্যস্থানে না সরানোর নির্দেশ দিয়েছি। এছাড়া আত্মসাতকৃত ৬ ট্রাক কাঠের সন্ধান পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন থানার এসআই তৌহিদ হোসেন।

তিনি বলেন, ‘অভিযোগ পাওয়ার পর বুধবার ওসি স্যার আমাকে পাঠিয়েছিলেন। এদিন বিকেলে সীমাখালী বাজারের কলু বাড়ির মোড়ে অভিযুক্ত ঠিকাদারের সারের দোকান ও বাড়ির মসজিদের পাশে কাঠগুলো পাওয়া গেছে। বৈধতা যাচাইয়ের জন্য উভয় পক্ষকে থানায় আসতে বলা হয়েছে। যাচাই শেষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ সোনার বাংলা নিউজ ২৪
কারিগরি কালের ধারা ২৪