1. admin@sonerbanglanews24.com : admin :
বুধবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২২, ০৬:৫৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
নতুন বছরে বাংলাদেশ অমিত সম্ভাবনার পথে এগিয়ে যাবে অসুস্থ হয়ে বিএসএমএমইউ(পিজি) হাসপাতালে ভর্তি ওবায়দুল কাদের, দেশবাসীর কাছে দোয়া কামনা চৌগাছায় ৮৮লক্ষ টাকা ব্যয়ে কলেজ ভবনের শুভ উদ্ভোধন কক্সবাজারে বিমানের ধাক্কায় ২ গরুর মৃত্যু, ঢাকায় নিরাপদ অবতরণ ঢাকা মহানগর উত্তর ছাত্রলীগের সভাপতি ইব্রাহিম বহিষ্কার ঝিকরগাছা উপজেলায় নৌকা প্রতিকে নির্বাচিত চেয়ারম্যানদের সম্বর্ধনা মিরপুর বিভাগে বিশেষ কৃতিত্বের জন্য শ্রেষ্ঠ থানা হিসাবে পল্লবী থানা পুরষ্কৃত বিএসপিইউএ এর ওয়েবিনার “কিভাবে হাই ইমপ্যাক্ট গবেষণা প্রকাশনা প্রকাশ করা যায়: কিছু প্রস্তাবনা” প্রগতি লাইফ ইন্সুরেন্স এর মেট্রো প্রকল্পের ম্যানেজারদের ট্রেনিং এবং সম্মেলন অনুষ্ঠিত ২য় ধাপে ৮৪৮টি ইউপি ভোট ১১ই নভেম্বর, ভোট হবে ইভিএম এর মাধ্যমে

ভুল চিকিৎসায় কুরবানির হাটের ৮লাখ টাকা দামের গরুটি মারা গেল

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ১০ আগস্ট, ২০২১
  • ১২০ বার পঠিত

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় ভুয়া প্রাণী চিকিৎসকের ভুল চিকিৎসায় আট লাখ টাকা মূল্যের একটি গরু মারা গেছে। গরুটি মারা যাওয়ায় সর্বস্বান্ত হয়েছেন দরিদ্র কৃষক আবদুল গাফফার। এ বিষয়ে জেলা প্রশাসকের কাছে অভিযোগও দেওয়া হয়েছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, কৃষক আব্দুল গাফফার চার বছর ধরে একটি হলিস্টিয়ান জাতের গরু পালন করেন। ঢাকার কোরবানির হাটে গরুটির দাম আট লাখ টাকা হাঁকানো হলেও তিনি বিক্রি করেননি। কাঙ্ক্ষিত ১২ লাখ টাকা দাম না পাওয়ায় গরুটি বাড়ি ফিরিয়ে আনেন। তবে গরুটি কোরবানির হাটে অসুস্থ হলে নিজেকে রেজিস্টার্ড প্রাণী চিকিৎসক দাবি করা কেরেলকাতার ইব্রাহিম হোসেন ২৫-২৬ দিন চিকিৎসা করান।

পরে অবস্থার উন্নতি না হলে ইব্রাহিম গরুর মালিককে জানান, কলারোয়ায় মাজুবর নামের একজন ডিগ্রিধারী প্রাণি চিকিৎসক আছেন। এরপর ওই মাজুবরের ‘অপচিকিৎসায়’ গত ৬ আগস্ট গরুটি মারা যায়।

জানা গেছে, নিজেকে বড় ডিগ্রিধারী প্রাণি চিকিৎসক পরিচয় দানকারী মাজুবর মূলত কলারোয়া উপজেলা প্রাণিসম্পদ অফিসের কম্পাউন্ডার। তিনি ইতোপূর্বে কলারোয়া উপজেলার বিভিন্ন স্থানে নিজেকে বড় ডাক্তার পরিচয় দিয়ে দীর্ঘদিন ধরে অপচিকিৎসা দিয়ে যাচ্ছেন। এছাড়া উপজেলার প্রাণী চিকিৎসকদের ভয়ভীতি দেখিয়ে বিভিন্ন কোম্পানির ওষুধ প্রেসক্রিপশনে লেখানোর অভিযোগও তার বিরুদ্ধে রয়েছে।

এ বিষয়ে কৃষক আবদুল গাফফার বলেন, ‘আমার গরু অসুস্থ হলে আমি ইব্রাহিম হোসেনকে ডাকি, তিনিই আমাকে বড় ডাক্তার মাজুবর সাহেবের কথা বলেন। তাকে ডেকে চিকিৎসা দেন। ৫-৭টি ইনজেকশন পুশ করেন। আরও কিছু পাউডার দেন। পরে গরুটি মারাত্মক অসুস্থ হয়ে পড়লে অসংখ্যবার ফোন করলেও তারা রিসিভ করেনি। আমি দরিদ্র কৃষক, এর বিচার চাই।’

অভিযুক্ত ইব্রাহিম হোসেন বলেন, ‘আমি ওই গরু চিকিৎসা করিনি। তারা আমাকে চিকিৎসার জন্য বলেছিল।’ তবে কম্পাউন্ডার মাজুবরকে বড় ডাক্তার পরিচয় দিয়ে চিকিৎসা করানোর জন্য ডাকার কথা শিকার করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কলারোয়া উপজেলা প্রাণিসম্পদ অফিসের কম্পাউন্ডার মাজুবর রহমান প্রথমে ওই ষাঁড়টিকে চিকিৎসার কথা অস্বীকার করলেও পরে স্বীকার করেন। তবে বড় ডাক্তার পরিচয় দিয়ে চিকিৎসা ও বিভিন্ন প্রান্তের চিকিৎসকদের নির্দিষ্ট কোম্পানির ওষুধ লিখতে প্রভাবিত করার কথা অস্বীকার করেন।

কলারোয়া উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ড. অমল কুমার সরকার বলেন, ‘আমরা এ সংক্রান্ত একটি অভিযোগ পেয়ে তাকে শোকজ করেছি। তদন্ত সাপেক্ষে তার বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

সাতক্ষীরা জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা শহিদুল ইসলাম বলেন, ‘আমি বিষয়টি জেনেছি। তবে আমি জেনেছি, প্রাথমিক চিকিৎসায় গরুটি সুস্থ ছিল, কিন্তু পরবর্তী সময়ে আর চিকিৎসা করানো হয়নি।’

একজন কম্পাউন্ডার চিকিৎসা দিতে পারেন কি না- জবাবে তিনি বলেন, ‘ভেটেরিনারি সার্জন ছাড়া আর কারও চিকিৎসা দেওয়ার ক্ষমতা নেই।’

সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক হুমায়ুন কবির বলেন, ‘এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০২১ সোনার বাংলা নিউজ ২৪
কারিগরি কালের ধারা ২৪